সখীপুরে স্কুল খোলা থাকলেও নেই একজন শিক্ষার্থীও, প্রধান শিক্ষকের রুমেও ঝুলছে তালা

জাতীয় প্রচ্ছদ শিক্ষাঙ্গন সারাদেশ

–মুহাম্মদুল্লাহ

টাঙ্গাইলের সখীপুরে একটি স্কুলে ১৪০ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে মাত্র ৯জনকে নিয়ে চলছে পাঠদান। প্রধান শিক্ষকের রুমেও ঝুলছে তালা।

সোমবার (৬ মে) বেলা ১১ টায় উপজেলার কাকড়াজান ইউনিয়নের সুরীরচালা আব্দুল হামিদ চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় ঘুরে এমন দৃশ্য দেখা যায়।

বিদ্যালয়টির ষষ্ঠ শ্রেণিতে একজন শিক্ষার্থীকে পড়াচ্ছেন সহকারী শিক্ষক জামাল মিয়া। সপ্তম শ্রেনীতে ৩ জনকে পড়াচ্ছেন সহকারী শিক্ষিকা সুমী, অষ্টম শ্রেণিতে আছে ৫ জন শিক্ষার্থী, নবম ও দশম শ্রেণিকক্ষে ওপরে ফ্যান ঘুরতে দেখা গেলেও দেখা যায়নি একজন শিক্ষার্থীকেও।

বিদ্যালয়টির এমন ভুতুড়ে অবস্থা কেন জানতে চাইলে সহকারী প্রধান শিক্ষক নুরুল ইসলাম জানান, গত ২৮ এপ্রিল রোববার সকালে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান শিক্ষকের বিভিন্ন অপকর্মের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেন এই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও স্থানীয়রা। ওই মানববন্ধনে তারা প্রধান শিক্ষকের অপসারণ দাবি করেন। এরপর থেকেই স্কুলে ১৪০ জন শিক্ষার্থী থাকলেও তারা ক্লাসে উপস্থিত হয় না বললেই চলে।

শিক্ষক নুরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি দ্রুত সমাধান করা প্রয়োজন। শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় সমস্যা হচ্ছে।

ওই বিদ্যালয়ের আরেক সহকারী শিক্ষক মুনসুর জানান, প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মানববন্ধনের পর থেকেই শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি কমে গেছে।

অভিভাবক সদস্য মুঞ্জুরুল মুর্শেদ জানান, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কফিল উদ্দিনের বিভিন্ন অপকর্মের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও স্থানীয়রা মানববন্ধন করেছে। তারা প্রধান শিক্ষকের অপসারণের দাবি জানিয়েছে। বিষয়টি সমাধান না হওয়ায় অভিভাবকরা শিক্ষার্থীদেরকে স্কুলে পাঠাচ্ছে না। আর যারা উপস্থিত হচ্ছে তারা স্কুলের শিক্ষকদেরই সন্তান।

এদিকে বেলা ১১ টায়ও প্রধান শিক্ষকের রুমে কেন তালা ঝুলছে জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষক কফিল উদ্দিন মুঠোফোনে জানান, আমি এবং আমার শিক্ষার্থীদেরকে কমিটির লোকজন ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। এ কারণে আমি মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি এবং প্রতিষ্ঠানের কাজেই আমি বাইরে আছি।

এ বিষয়ে সখীপুর উপজেলা শিক্ষা অফিসার হারুনুর রশিদের বক্তব্য নেয়ার জন্য একাধিকবার ফোন করা হলেও পাওয়া যায়নি।