ফেনীর সোনাগাজীতে মাদরাসা ছাত্রী অপহরণ মামলায় একজন গ্রেফতার

প্রচ্ছদ সারাদেশ

শরিফুল ইসলাম ফেনী প্রতিনিধিঃ

ফেনীর সোনাগাজীতে ভাইকে মারধর করে জোরপূর্বক এক মাদরাসা ছাত্রীকে অপহরণ মামলার অন্যতম আসামি সিএনজি অটোরিকশা চালক আবদুল খালেক কে গতকাল রাতে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

অভিযুক্ত আবদুল খালেক ফেনী সদর উপজেলার ধলিয়া ইউনিয়নের দৌলতপুর গ্রামের আবদুল মুনাফের ছেলে।

পুলিশ, ভুক্তভোগির পরিবার ও এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানাযায় বখতারমুন্সি ফাজিল মাদরাসার আলিম প্রথম বর্ষের এক ছাত্রী মাদরাসায় যাওয়া-আসার সময় প্রেমের প্রস্তাবে দীর্ঘ দিন যাবৎ নবাবপুর ইউনিয়নের নাজিরপুর গ্রামের ফয়েজ আহম্মদের ছেলে মো. এয়াছিন উত্ত্যাক্ত করে আসছে। তার প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় সোমবার দুপুর দেড়টার দিকে এয়াছিন ১০-১৫জন সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে নাজিরপুর গ্রামের কন্যার মা’র পুলের উপর অবস্থান নেন। পরীক্ষা শেষে ওই ছাত্রী ও তার বড় ভাই সিএনজি যোগে বাড়ি ফিরছিলেন। কন্যার মা’র পুলের উপর গেলে এয়াছিনের নেতৃত্বে তার বখাটে সহযোগিরা সিএনজি অটোরিকশার গতিরোধ করে ছাত্রীর ভাইকে এলোপাথাড়ি মারধর করে এবং তার সাথে থাকা মুঠোফোন, মাণি ব্যগ ছিনিয়ে নেন।

এসময় পূর্ব থেকে ওঁৎপেতে রাখা অপর একটি সিএনজি অটোরিকশাযোগে ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক অপহরণ করে অজ্ঞাতস্থানে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে রাতভর অভিযান চালিয়েও ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। অপহরণ কাজে ব্যবহৃত সিএনজি অটোরিকশাটি জব্দ ও চালককে রাতেই তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মো. হাসান ইমাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সহযোগি এক আসামিকে রাতেই গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলার মূল আসামি সহ বাকীদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।