ফেনীর সদর উপজেলায় গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ

প্রচ্ছদ সারাদেশ

শরিফুল ইসলাম ফেনী প্রতিনিধিঃ

ফেনী সদর উপজেলা ধলিয়া ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের দৌলতপুর পাটোয়ারী বাড়িতে এক গৃহবধূকে মেরে ফাঁসীর নাটক সাজানোর অভিযোগ উঠেছে। হত্যার শিকার গৃহবধূ ইসরাত জাহান সোনাগাজী উপজেলার নবাবপুর ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড এর মোঃ নরুল আফসার (কাতার প্রবাসী) এর মেয়ে, গত ২/১২/২২ইং তারিখে ফেনী সদরের ধলিয়া ইউনিয়নের ৭ নং ওর্য়াডের দৌলতপুর পাটোয়ারী বাড়িতে মিজানুর রহমান পিতা আবু আহমদ এর সহিত বাবার প্রথম মেয়ে হিসেবে দুমদাম করে বিবাহ দেন।

বিবাহের কিছু দিন যেতে না যেতে স্বামী প্রবাসে থেকে মা ভাই বোনকে দিয়ে মেয়েকে তার বাবার বাড়ি থেকে যৌতুকের টাকা এনে দিতে পারিবারিক মানসিক শারিরীক নির্যাতন চালাতে থাকেন। মেয়ের মা বাবা স্বামীর বাড়ির নির্যাতন থেকে মেয়েকে বাচাতে বেশ কিছু নগদ টাকা প্রদান করেছেন তবুও যৌতুক লোভী শাশুড়ী জাহানারা বেগম ননদ রুনা দেবর রায়হান আরো যৌতুক এনে দিতে মেয়েকে চাপ সৃষ্টি করায় মেয়ে আর কোন টাকা দিতে পারবে না তার বাবা এই কথা বলার সাথে সাথে রাত অনুমান ১১.৩০ ঘটিকার সময় নববধূ ইসরাত জাহান উর্মিকে শ্বাসরুদ্ধে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে খাটিয়ায় শুয়ে রাখেন।

ফেনী মডেল থানায় খবর পেয়ে খাটিয়ায় শুয়ে রাখা নববধূর মরদেহ থানায় নিয়ে আসেন এবং ফেনী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরন করেন। বর্তমানে নববধূ ইসরাত জাহান উর্মির মরদেহ ফেনী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে রাখা আছে।