আন্দোলনের খেলা শুরু হয়ে গেছে : নুর

জাতীয় প্রচ্ছদ রাজনীতি

সরকারের কাঁপুনি ধরে গেছে মন্তব্য করেছেন গণঅধিকার পরিষদের (একাংশ) সভাপতি নুরুল হক নুর। এজন্য তারা ইন্টারনেট বন্ধ করে দিচ্ছে, বাসে বাসে তল্লাশি চালাচ্ছে।

তিনি বলেন, আন্দোলনের খেলা ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে। বিএনপিসহ সব বিরোধীদলের প্রতি আহ্বান থাকবে, আপনার এই আন্দোলনে অংশগ্রহণ করুন।

nagad

শুক্রবার (২৮ জুলাই) গণঅধিকার পরিষদের কার্যালয়ের সামনে এক দফা দাবিতে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে এসব কথা বলেন নুরুল হক নুর।

তিনি আরও বলেন, ‘ডিজিটাল প্রযুক্তির মাধ্যমে ব্যাংকের রিজার্ভ চুরি করা হয়েছে। শেয়ারবাজার, ব্যাংক খাত ধ্বংস করে দেশকে দেউলিয়া বানানো হয়েছে। সরকার যেসব ঋণ নিয়েছে, সে ঋণের বোঝা জনগণের ঘাড়ে এসে পড়ছে।’

‘ভারতীয়দের দালাল আওয়ামী সরকারকে যদি না হটানো হয়, তাহলে বাংলাদেশ ভারতের একটি করদ রাজ্যে পরিণত হবে।’

সাবেক ভিপি বলেন, এই সরকার যদি শান্তিপূর্ণভাবে পদত্যাগ না করে, তাহলে গণভবন-বঙ্গভবন ঘেরাও করা হবে। কেউ যেন পালিয়ে যেতে না পারে, তার জন্য এয়ারপোর্টও ঘেরাও করা হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘পত্রিকায় খবর এসেছে, শান্তি সমাবেশে যোগদান করার জন্য ঢাবি ছাত্রদের বাধ্য করা হয়েছে। বলা হয়েছে, না গেলে হলে থাকতে দেওয়া হবে না। ছাত্রসমাজের প্রতি আহ্বান, আপনারা যদি ঐক্যবদ্ধ হন, এই ছাত্রলীগ পালিয়ে যেতে বাধ্য হবে। এমন কেউ নেই যে তারা বাকশালীদের দ্বারা অত্যাচারিত হয়নি। ভিন্নমতের ওপর ক্রমাগত স্টিমরোলার চালানো হয়েছে।’

সমাবেশে দলের (একাংশ) সাধারণ সম্পাদক রাশেদ খানসহ আরও বক্তব্য রাখেন সম্মিলিত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র অধিকার পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জানে আলম অপু, ঢাকা মহানগর উত্তর শ্রমিক অধিকার পরিষদের মাহবুবুল হক, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবঅধিকার পরিষদের সহসভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতি আসাদ রনি, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম প্রমুখ।